আজ : ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, শনিবার প্রকাশ করা : আগস্ট ৩০, ২০২১

  • কোন মন্তব্য নেই

    সিংড়ায় সেই নৌকার মাঝি হত্যা রহস্য উদঘাটন,অভিযুক্ত যুবক আটক

    সিংড়ায় সেই নৌকার মাঝি হত্যা রহস্য উদঘাটন,অভিযুক্ত যুবক আটক

    সৌরভ সোহরাব,সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধিঃ

    নাটোরের সিংড়ার সেই নৌকার মাঝিকে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। প্রেমে বাধা দেওয়ার ঘটনায় আরজু (২৭) নামের সেই নৌকার মাঝিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আটক হওয়া বাইজিদ বোস্তামী (১৮) ওই হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করেছে। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত বাঁকি দুইজনকে আটক করা যায়নি। সোমবার বেলা ১২টায় সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান জেলা পুলিশ। নিহত আরজু মাঝি সিংড়া উপজেলার চামারি ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামের কদম আলীর ছেলে। অভিযুক্ত বাইজিদ গুরদাসপুর উপজেলার বিলহরি বাড়ি গ্রামের নাছির বোস্তামীর ছেলে।

    জেলা পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, আরজু মাঝির প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীর সাথে বাইজিদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সেই সূত্র ধরে বাইজিদ ওই গ্রামে ঘন ঘন যাতায়াত শুর করে। স¤প্রতি মেয়ে ঘটিত ওই বিষয় নিয়ে আনন্দনগর গ্রামে বাইজিদ ও তার তিন বন্ধুর সাথে আরজু মাঝির বাকবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। স্বীকারোক্তিতে অভিযুক্ত বাইজিদ জানিয়েছে, মূলত প্রেমে বাধা দিয়ে তাদের লাঞ্চিত করার প্রতিশোধ হিসাবেই আরজু মাঝিকে তিন বন্ধু মিলে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

    এসপি আরও জানান, পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২৬ আগষ্ট চলনবিলের তিশি খালী ভ্রমনের জন্য কৌশলে ৭’শ টাকায় আরজু মাঝির নৌকা ভাড়া নেয় অভিযুক্ত বাইজিদ ও তার বন্ধুরা। সন্ধার পর আরজু মাঝি তার নৌকায় বাইজিদদের নিয়ে ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ঘটনার রাতে নৌকাটি গুরুদাস পুর উপজেলার হরদমা বিলে পৌঁছালে নৌকা থামিয়ে বাইজিদ ও তার বন্ধুরা মিলে আরজু মাঝির পা ও গলা ধরে রশি দিয়ে নৌকার সাথে বেধে ফেলে। এসময় বাইজিদ আরজু মাঝিকে প্রেমে বাধা দেওয়ার কথা বলে। প্রতিশোধ হিসাবে আরজু মাঝিকে খুন করার কথা জানায়। আরজু মাপ চেয়ে বাঁচার আকুতি জানান। তাতেও মন গলেনি অভিযুক্তদের। এসময় ১০ হাজার মুক্তিপন দাবি করে তারা। টাকা আসতে দেরি হওয়ায় বাইজিদের একবন্ধু চাইনিজ কুড়াাল দিয়ে আরজু মাঝির মাথার পিছনে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ পানিতে ফেলে দেয়। উল্লেখ্য গত ২৬ আগষ্ট সিংড়ার আনন্দ নগর গ্রামের আরজু মাঝি নিখোঁজের ৩৬ ঘন্টা পর গুরুদাসপুরের বিলসা বিল থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করে পলিশ।

    সিংড়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার জামিল আকতার এর নেতৃত্বে হত্যার রহস্য উদঘাটন করে তিনজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে অভিযুক্ত বাইজিদকে গুরুদাসপুর উপজেলার বেড়গঙ্গারামপুর গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার অপর দুই বন্ধু পলাতক রয়েছে। পলাতক দুই আসামী গ্রেফতারের জন্য আমাদেও অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য গত ২৬ আগষ্ট সিংড়ার আনন্দ নগর গ্রামের আরজু মাঝি নিখোঁজের ৩৬ ঘন্টা পর গুরুদাসপুরের বিলসা বিল থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করে পলিশ।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *